অফিসে ফেরা হলো না মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা গ্রহণ শেষে অফিসে ফেরার পথে মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন জামালপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম (৫৩)। বুধবার বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে জামালপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত আফরোজা বেগম ঢাকার খিলগাঁওয়ের ব্যবসায়ী মজিবর রহমানের স্ত্রী। তিনি জামালপুর শহরের মুকুন্দ বাড়ি এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

দুই সন্তানের জননী আফরোজা বেগম ২০১৫ সালে জামালপুরে যোগদান করেন। তার মৃত্যুতে শিক্ষা অফিসের সহকর্মী, সরকারী-কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, জামালপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগম আজ দুপুরে সদরের নান্দিনায় একটি বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা নিতে যান। কাজ শেষে বিকেলে তার কার্যালয়ের একাডেমিক সুপারভাইজার মো. হায়দার আলী তাকে পেছনে বসিয়ে মোটরসাইকেলে অফিসে ফিরছিলেন।

পথে বিকেল ৪টার দিকে ময়মনসিংহ-জামালপুর সড়কের শরিফপুর বগালি এলাকায় চলন্ত মোটরসাইকেল থেকে আকস্মিক পড়ে যান আফরোজা বেগম। এতে তিনি মাথায় গুরুতর আঘা’ত পান। স্থানীয়রা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে দ্রুত জামালপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি মারা যান।

জামালপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম খান বলেন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরুজা বেগমের মৃত্যুর ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা দায়ের করা হয়নি। মরদহে এখন জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। ময়নাতদন্তের পর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জামালপুর জেলা ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা কর্মকর্তা মনিরা মুস্তারি ইভা বলেন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফরোজা বেগমের বাড়ি গাজীপুর জেলার কাপাসহাটিয়া উপজেলায়। ঢাকায় খিলগাঁয়ে তাদের নিজস্ব বাসা রয়েছে। রাতে জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে স্বজনরা তাকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে দাফন করার কথা রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ   ক্লাসে প্রথম-দ্বিতীয়-তৃতীয় রোল থাকছে না!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *