রেকর্ড পরিমাণে কমলো সোনার দাম

আবারও কমেছে সোনার দর। দেশের বাজারে টানা দরপতনের দিকে আছে সোনা। চলতি মাসের শুরুতে কিছুটা বাড়তির দিকে থাকলেও গত মাসেই মূলত কমা শুরু হয় মূল্য।

মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে গোটা বিশ্বের অর্থনীতির টালমাটাল অবস্থা থাকার কারনে সেখান থেকে বেরিয়ে আসতেই দাম চড়ে সোনার।

গত জুলাই মাসে রেকর্ড পরিমাণ মূল্য বৃদ্ধির পর আবার কমছে দাম।

গত রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি আউন্স সোনার দাম ধরা হয় ১৯৪০.৪৩ ডলার। এর আগের দিন ১২ সেপ্টেম্বর থেকে এদিন মূল্য হ্রাস পায় এক ডলার।

অন্যদিকে ৯ সেপ্টেম্বর প্রতি আউন্স সোনার দাম আন্তর্জাতিক বাজারে ছিল ১৯৪৬.৫৬ ডলার।

এরপর থেকেই টানা কমতির দিকে থাকে সোনার মূল্য। আন্তর্জাতিক বাজারের এই দরপতনের প্রভাব দেশের বাজারে পড়তে অবশ্য আরও বেশ কিছুদিন সময় লাগতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, চলতি বছরে সোনার মূল্য বৃদ্ধি হবার প্রবণতা বজায় থাকলেও সেটা থাকবে খুবই স্বল্প পরিমানে।

বছরের শেষের দিকে স্বল্প পরিমানে মূল্য বাড়ার সম্ভাবনা থাকলেও পরবর্তীতে আবারও কমতে শুরু করবে এই ধাতবের মূল্য।

তবে আগের মূল্যে আবারও ফেরত যাবে কিনা সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাচ্ছে না বলেও জানিয়েছেন বাজার বিশ্লেষকরা।

প্রসঙ্গত, করোনা ভাইরাসের কারনে বিশ্বের অর্থনৈতিক ক্ষতি কাটিয়ে উঠতেই মূলত বেড়ে যায় সোনার মূল্য।

করোনার শুরুর দিকে অর্থাৎ, মার্চের দিকে কিছুটা কমতির দিকে থাকলেও পরবর্তী দুই মাস পর বেড়ে যায় মূল্য। যার প্রভাব পড়েছিল দেশের বাজারেও।

প্রতি ভরি সোনার দাম প্রায় ৮০ হাজার টাকার কাছাকাছি গিয়ে ঠেকছিল দেশের বাজারে। সোনার এই মূল্য বৃদ্ধির পর ধীরে ধীরে আবারও কমতে শুরু করেছে এই দাম।

করোনার আগে যেখানে যেখেনে দেশের বাজারে প্রতি ভরি সোনার মূল্য ছিল ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকার মধ্যে সেখানে বর্তমানে প্রতি ভরি সোনা বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৭০ হাজার টাকার কাছাকাছি।

আরো পড়ুনঃ   কো’পানোর সময় যা বলেছিলেন সেই ইউএনও

Check Also

বাংলাদেশের বাজারে ভরিত স্বর্ণের নতুন দাম নি’র্ধারণ, জেনে নিন আজকের বাজার দর

ভরিতে স্বর্ণের দাম এক হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে নতুন মূল্য নি’র্ধারণ করেছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *