Breaking News

আমাদের বিয়ের সাক্ষী ছিলেন সাদেক বাচ্চু

ঢাকাই চলচ্চিত্রের শক্তিমান অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। ১৯৮৫ সালে ‘রামের সুমতি’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় পা রাখেন।

খল-অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পেলেও শুরু করেছিলেন নায়ক হিসেবে। ‘সুখের সন্ধানে’ সিনেমায় প্রথম খল চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি।

বিখ্যাত নির্মাতা এহতেশামের সুপারহিট সিনেমা ‘চাঁদনী’তে খল চরিত্রে অভিনয় করে সাদেক বাচ্চু বিশেষ পরিচিতি পান।

এবং এই সিনেমার মাধ্যমে শাবনাজ-নাঈমের চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে।

গতকাল (১৪ সেপ্টেম্বর) না-ফেরার দেশে চলে গেছেন সাদেক বাচ্চু। বরেণ্য এই অভিনেতার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে শোবিজ অঙ্গনে।

প্রথম সিনেমায় সাদেক বাচ্চুকে পেয়েছিলেন শাবনাজ-নাঈম।

সে সময়ের স্মৃতিচারণ করে চলচ্চিত্রে সোনালি সময়ের আলোচিত এই জুটি বলেন,

‘সাদেক বাচ্চু পরিপূর্ণ অভিনেতা ছিলেন। যে কারণে প্রথম ছবিতেই তার কাছ থেকে আমরা অভিনয় সম্পর্কে ভালো ধারণা পেয়েছিলাম।’

নাঈম বলেন, ‘তার মৃত্যুর খবর শুনে মন ভীষণ খারাপ হয়ে আছে। বারবার ‘চাঁদনী’ সিনেমার কথা মনে পড়ছে।

বাচ্চু আঙ্কেল আমাদের হাত ধরে শিখিয়েছিলেন কীভাবে ক্যামেরার সামনে হাঁটতে হয়, সংলাপ ডেলিভারি দিতে হয়। তিনি হাতে ধরে আমাকে অভিনয় শিখিয়েছেন। তার তুলনা হয় না!’

শাবনাজ এখন নাঈমের সহধর্মিণী। শাবনাজ বলেন, ‘বাচ্চু আঙ্কেল নেই- ভাবতেই কষ্ট হচ্ছে। চলচ্চিত্রে অভিনয়ের আগে থেকেই আঙ্কেলের সঙ্গে আমাদের পরিচয়। কারণ আমার বাবা মঞ্চে কাজ করতেন। বাবা ও বাচ্চু আঙ্কেল বন্ধু ছিলেন।

যে কারণে আঙ্কেল আমাকে মেয়ের মতো আদর করতেন। আমাদের বিয়ের সাক্ষী ছিলেন বাচ্চু আঙ্কেল।’

গত ১২ সেপ্টেম্বর সাদেক বাচ্চুর শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় এর দু’দিন পর তার মৃত্যু ঘটে। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।

আরো পড়ুনঃ   করোনায় থমকে গেছে চ’ল’চ্চিত্রাঙ্গন, ঘরে বসে কি করছেন অপু বিশ্বাস?

Check Also

বাবাকে হারিয়ে নিজেকে বড় অসহায় মনে হচ্ছে: বাপ্পী

প্রা’ণঘাতী করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা গেছেন ঢাকাই সিনেমা’র জনপ্রিয় খল অ’ভিনেতা সাদেক বাচ্চু। সোমবার (১৪ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *